মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

এক নজরে

বাংলাদেশ শিশু একাডেমী শিশুদের শারীরিক, মানসিক ও সাংস্কৃতিক প্রতিভা বিকাশের একমাত্র সরকারী প্রতিষ্ঠান। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের অধীন বাংলাদেশ শিশু একাডেমী প্রতিষ্ঠার পর থেকেই শিশুদের কল্যানে কাজ করে চলেছে। ১৯৭৪ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জাতীয় শিশুনীতি প্রনয়নের পর তেকেই শুরম্ন হয় শিশুদের সার্বিক মঙ্গলের জন্য সরকারীভাবে বিভিন্ন কর্মসূচি প্রনয়ন। জাতীয় শিশুনীতির আলোকেই প্রতিষ্ঠিত হয় বাংলাদেশ শিশু একাডেমী। ১৯৯৬ সালের ২৩ জুন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা সরকার গঠনের পর ১৯৯৬ সালের ০১ ডিসেম্বর থেকে বাংরাদেশ শিু একাডেমীর উপজেলা শাখার কার্যক্রম শুরম্ন হয়। ১৯৯৭ সালের ১৭ এপ্রিল ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসে বাংলাদেশ শুি একাডেমী, কেশবপুর উপজেলা শাখার কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন ঘোষনা করেন তৎকালীন শিক্ষা, প্রাথমিক ও গণ শিক্ষা এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রনালয়ের মাননীয় মন্ত্রী ও কেশবপুরের সাংসদ মরহুম এ.এস.এইচ.কে.সাদেক। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই বাংলাদেশ শিশু, কেশবপুর উপজেলা শাখায় শিশুদের কল্যাণে প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা, শিমু বিকাশ, সাংস্কৃতিক প্রশিক্ষণ (সংগীত, নৃত্য, চিত্রাংকন, আবৃত্তি ও তবলা)। জাতীয় শিশু পুরস্কার প্রতিযোগিতা, শিশুদের মৌসুমি প্রতিযোগিতা, বিভিন্ন জাতীয় দিবসের অনুষ্ঠানে শিশুদের অংশগ্রহণে, প্রতিযোগিতার আয়োজন এবং সনদপত্র ও পুরস্কার প্রদান করে যাচ্ছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রতিষ্ঠানের সভাপতি এবং উপজেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা প্রতিষ্ঠানের সদস্য সচিব। এছাড়া আরো ০৭জন সম্মানীত সদস্য রয়েছেন পরিচালনা কমিটিতে। শিশুদের সার্বিক কল্যাণে প্রতিষ্ঠানটি কাজ করে চরেছে। ২০০১ সালের ২৬ জুন বর্তমান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশ শিশু একাডেমী উপজেলা শাখার জনবলকে রাজস্বখাতে স্থানামত্মরের লিখিত সুপারিশ করেন। এখন দরকার দেশের প্রতিটি উপজেলায় বাংলাদেশ শিশু একাডেমীর কার্যক্রম। একমাত্র মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ পদক্ষেপই পারে শিশুদের কল্যাণে প্রতিটি উপজেলায় বাংলাদেশ শিশু একাডেমীর কার্যক্রম সম্প্রসারনের উদ্যোক গ্রহণ করতে। যার ফলে শিশুদের সুপ্ত প্রতিভা বিকাশোর সুযোগ ঘটবে।

       ইতোমধ্যে জাতীয় শিশু পুরস্কার প্রতিযোগিতা, জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ, ও জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহে বাংরাদেশ শিশু একাডেমী কেশবপুর উপজেলা শাখার শিক্ষার্থীরা স্বর্ণপদক ও রৌপ্য পদক ছিনিয়ে এনে কেশবপুরের মুখ উজ্জ্বল করেছে। যারা স্বর্ণ ও রৌপ্য পদক প্রাপ্ত হয়েছে, তাদের মধ্যে উলেস্নখযোগ্য হলো :

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter